শাহাদাত হোসেন রাকিব

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

পার্কে নয়, মাঠে খেলতে চায় ওরা

১০ নভেম্বর, ২০১৭ ১৮:৩৩:৩৩

পান্থকুঞ্জ পার্ক। রাজধানীর বাংলামোটরে অবস্থিত। এখানে সকাল-বিকাল চলে ক্রিকেট খেলা। বাংলামোটরের আশেপাশে বসবাসরত অনেকেই আসেন এখানে খেলতে। ছুটির দিনগুলোতে এ পার্ক অনেক ব্যস্ত হয়ে পরে। ছোট শিশু থেকে শুরু করে যুবকরাও এখানে খেলতে আসেন।

শুক্রবার (১০ নভেম্বর) সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, একাধিক দল ভাগ হয়ে আলাদাভাবে ক্রিকেট খেলছে শিশুরা। কেউ ইট দিয়ে বানিয়েছে ষ্ট্যাম্প আবার কেউ বানিয়েছে গাছের শাখা দিয়ে। একই পার্কে ছড়িয়ে-ছিটিয়ে বিভিন্ন গ্রুপ হয়ে খেলার কারণে গায়ে বল পড়ার ঝুঁকি রয়েছে। এ ঝুঁকি নিয়েই সেখানে খেলতে হচ্ছে তাদের।

সেখানে কথা হয় রাজধানীর কাঠালবাগান থেকে আসা প্রথম শ্রেণীতে পড়ুয়া তুহিনের সঙ্গে। সে জানায়, সময় পেলেই বন্ধুদের সঙ্গে ব্যাট-বল নিয়ে এখানে খেলতে আসে সে। সপ্তাহের অন্যান্য দিনগুলোতে সময় কম পেলেও শুক্রবার ছুটির দিনেই এখানে বেশী আসে সে। তবে তার কথায় মাঠে খেলতে না পারার আক্ষেপের সুর পাওয়া যায়।

তুহিন বিডি২৪লাইভকে বলেন, ‘মাঠ নেই, তাই পার্কেই খেলতে আসি। মাঠ থাকলে মাঠে খেলতাম।’

তুহিনের সাথে কথা বলে সামনে যেতেই চোখে পড়ে, ৭/৮ জনের একটি গ্রুপ ক্রিকেট খেলছে। তাদের সবার বাসা নর্থ সার্কেল রোড়ে। এই গ্রুপে বয়সের দিক দিয়ে একেবারে ছোট সেলিম। ৫ বছরের সেলিম কেজি শ্রেণীতে লেখাপড়া করে। সে জানায়, এ পার্ক থেকে বাসা না চিনলেও বাসার পাশের বড় ভাইদের সঙ্গে খেলতে এসেছে। আবার তাদের সাথেই একসাথে বাসায় যাবে।

একই গ্রুপের সদস্য প্রথম শ্রেণীতে পড়ুয়া বাদল বিডি২৪লাইভকে বলে, ‘আমরা সময় পেলেই এখানে খেলতে আসি। সবাই একসাথেই আসি আবার একসাথেই যাই।’

মাদ্রাসায় পড়ুয়া রিয়াজুল ইসলাম বলেন, ‘খেলার মাঠ পেলে সেখানেই খেলতাম। এখানে আসতাম না কিন্তু খেলার মাঠ নেই বলেই আমরা সবাই এখানে খেলতে আসি।’

বিডি২৪লাইভ/এসএইচআর/এমআর

বিডি টুয়েন্টিফোর লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: