সম্পাদনা: এম আর মাসফি

ডেস্ক এডিটর

নাটোরে জামাত-শিবির সন্দেহে আটক ১২

১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ২০:৪৫:০০

ছবি: নাটোরে জামাত-শিবির সন্দেহে আটক ১২

নাটোরের বাগাতিপাড়ায় জামায়াত-শিবিরের গোপন বৈঠকের খবর পেয়ে পুলিশ এক বাড়িতে তিন ঘন্টা ব্যাপী অভিযান চালিয়ে তিন নারীসহ ১২জনকে আটক করেছে।

মঙ্গলবার রাতে পৌর এলাকার পেড়াবাড়িয়া মহল্লার এক বাড়িতে এ অভিযান চালায় পুলিশ। তবে আটককৃতদের দাবি আধুনিক পদ্ধতিতে কোরআন শিক্ষা দেন তারা। বড় হুজুরের আগমনে তার সঙ্গে সাক্ষাত করতে তারা সেখানে এসেছিলেন।

এদিকে পুলিশ বলছে, জামায়াত-শিবির বা জঙ্গি সংশ্লিষ্টতা আছে কিনা তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। তবে রিপোর্ট লেখা (বুধবার সন্ধ্যা ৬টা) পর্যন্ত আটককৃতদের গ্রেফতার দেখানো হয়নি।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার রাত আটটার দিকে বাগাতিপাড়া মডেল থানা পুলিশ জামায়াত-শিবিরের গোপন বৈঠক অনুষ্ঠিত হওয়ার এক গোপন সংবাদ পায়। এরপর পরই পেড়াবাড়িয়া মহল্লার হাবিবুর রহমান বাবু এর নির্মানাধীন তিনতলা বাড়ি পুলিশ ঘিরে ফেলে। ওই বাড়ির নিচ তলায় বগুড়ার সাত শিমুলিয়া গ্রামের জালাল উদ্দিনের ছেলে আব্দুল করিম ভাড়া থাকেন। প্রায় তিন ঘন্টা ব্যাপী ওই বাড়িতে অভিযান চালায় পুলিশ। এ অভিযানে নাটোর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবুল হাসনাত, বাগাতিপাড়া মডেল থানা অফিসার ইনচার্জ আব্দুল্লাহ আল মামুন অংশ নেন।

পুরো বাড়ি তল্লাসী চালিয়ে চার জেলার বিভিন্ন এলাকার তিনজন নারীসহ ১২ জনকে আটক করে পুলিশ। আটককৃতরা হলো, ঝিনাইদহ হাউজ রোডের হামদ সততা পাড়ার মৃত নূর আলী বিশ্বাসের ছেলে মাজিদুল ইসলাম (৪৭), একই জেলার কালী চাঁনপুর বড় মান্দার বাড়িয়ার আব্দুস সাত্তারের আনারুল ইসলাম (৪২), বগুড়ার শিমুলিয়ার জালাল উদ্দিনের ছেলে নূর নবী (২৭) ও তার ভাই আঃ করিম (২৮), আঃ করিমের স্ত্রী আরিফা বেগম (২৪), নাটোরের সদর থানার সিংগারদহের জংলি গ্রামের আঃ রশিদের ছেলে আনিসুর রহমান (৩৫), আনিসুর রহমানের ছেলে রবিউল ইসলাম (১৮), বাগাতিপাড়া উপজেলার যোগীপাড়া গ্রামের তসলিম মন্ডলের ছেলে নান্টু মন্ডল (৩৫) ও নান্টুর স্ত্রী রাবেয়া বেগম (২৪), একই উপজেলার পেড়াবাড়িয়া মহল্লার মৃত মোক্তার মোল্লার ছেলে আল হেলাল (৩২), কোয়ালীপাড়া গ্রামের মৃত ফরহাদ হোসেনের ছেলে সেকেন্দার আলী (৪৬), সেকেন্দারের স্ত্রী আসমাউল হুসনা (২৪)। এদিকে পুলিশ ওই বাড়ি থেকে আধুনিক পদ্ধতিতে শুদ্ধ ভাষার কোরআন শেখার বেশ কিছু বই উদ্ধার করে। সেখান থেকে একটি মাইক্রোবাস (ঢাকা মেট্রো-চ ১৫-৩০২৬) জব্দ করে থানায় নেওয়া হয়।

আটককৃত ভাড়াটিয়া আঃ করিম জানান, ২০১২ সাল থেকে তিনি উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে আধুনিক পদ্ধতিতে বিশুদ্ধ কোরআন শিক্ষা দিয়ে থাকেন। তার মতো বেশ কিছু শিক্ষক এ শিক্ষা দেন। বড় হুজুর ঝিনাইদহের মাজিদুল ইসলাম এর এ শিক্ষা দেওয়ার এক সংস্থা রয়েছে। দীর্ঘ আড়াই বছর পর তার আগমনে বিভিন্ন এলাকা থেকে তার সঙ্গে সাক্ষাত দিতে শিক্ষকরা ওই বাড়িতে এসেছিলেন। এরপরই পুলিশ তাদের আটক করে।

এদিকে বড় হুজুর মাজিদুল ইসলাম জানান, বিশুদ্ধ বিজ্ঞান পদ্ধতিতে কোরআন তালিম ফাউন্ডেশন নামে তার একটি সংস্থা রয়েছে। তিনি সংস্থাটির পরিচালক। এটি ২০১২ সালে সরকার কর্তৃক অনুমোদিত এবং সারাদেশ ব্যাপী এ কার্যক্রম পরিচালিত হয়।

এব্যাপারে বাগাতিপাড়া মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, জামায়াত-শিবিরের গোপন বৈঠকের সংবাদ পেয়ে ওই বাড়িতে অভিযান চালানো হয়। জামায়াত-শিবির বা জঙ্গি সংশ্লিষ্টতার সাথে জড়িত কিনা সেদিকে লক্ষ্য রেখে সেখান থেকে আটককৃত ১২ জনকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।
এবিষয়ে নাটোর জেলা জামায়াতের সেক্রেটারী ড. মীর মোহাম্মদ নুরুল ইসলাম জানান, আটকৃতদের কেউ জামায়াত-শিবিরের সাথে সংশ্লিষ্ট নয়।


বিডি২৪লাইভ/এমআরএম

বিডি টুয়েন্টিফোর লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: