প্রচ্ছদ / রাজনীতি / বিস্তারিত

সম্পাদনায়: ইয়াসিন আলী

ডেস্ক এডিটর

ফেসবুকে জয়

‘বিএনপি পুরোপুরি মিথ্যেবাদী দল’

১৬ মে, ২০১৮ ২৩:৩৬:০০

ছবিঃ সংগৃহীত

খুলনা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে তিনটি কেন্দ্রে ‘কিছু সমস্যা’ হয়েছিল বলে দাবি করেছেন প্রধানমন্ত্রীর ছেলে সজীব ওয়াজেদ জয়। বলেছেন, নির্বাচন কমিশন সঠিকভাবে দায়িত্ব পালন করে এসব কেন্দ্রে ভোট বন্ধ করেছে। একটি ভোটকেন্দ্রের বাইরে বিএনপির ক্যাম্পে যে ভাঙচুর হয়েছে, সেটি বিএনপি নিজেরাই ঘটিয়েছে বলেও দাবি করেন জয়।

খুলনায় ভোটের একদিন পর নিজের ফেসবুক পেজে এক প্রতিক্রিয়ায় এ কথা বলেন। তিনি বিজয়ী প্রার্থী তালুকদার আবদুল খালেককে বড় জয়ের জন্য অভিনন্দনও জানান।

মঙ্গলবার খুলনায় ভোটে জালভোটের কারণে পাঁচটি কেন্দ্রে পুরোপুরি এবং একটি কেন্দ্রে একটি বুথে ভোট বন্ধ করে নির্বাচন কমিশন। শেষ পর্যন্ত তিনটি কেন্দ্রে ভোট বন্ধ রাখা হয়।

অবশ্য বিএনপির প্রার্থী নজরুল ইসলাম মঞ্জু দাবি করেছেন, ২৮৯টি কেন্দ্রের মধ্যে ১০৫টি কেন্দ্রেই জালভোট হয়েছে। তিনি এসব কেন্দ্রে নতুন করে নির্বাচন নেয়ার দাবি জানিয়েছেন।

জয় আস্থা রাখছেন নির্বাচন কমিশনের হিসাবে। তিনি লিখেন, ‘মোট ২৮৯টি ভোট কেন্দ্রের মধ্যে মাত্র তিনটি অর্থাৎ ১ শতাংশ ভোট কেন্দ্রে কিছু সমস্যার সৃষ্টি হয়েছিল। নির্বাচন কমিশন তাদের দায়িত্ব যথাযথভাবে পালন করেছে এবং উক্ত কেন্দ্রগুলোতে ভোটগ্রহণ বন্ধ রেখেছিল।’

ভোট চলাকালে একটি কেন্দ্রের অদূরে বিএনপির ক্যাম্পে যে ভাঙচুর হয়েছে তার জন্য যুবলীগের কর্মীদেরকে দায়ী করেছেন বিএনপির স্থানীয় নেতারা। তবে জয় লিখেন, ‘বিএনপি কর্মীরাই বরং কেন্দ্রগুলো ভাঙচুর করেছে, আবার এখন তারাই এটা নিয়ে গুজব ছড়াচ্ছে।’

ঘোষিত ফলাফল অনুযায়ী নৌকা প্রতীক নিয়ে তালুকদার আবদুল খালেক পেয়েছেন এক লাখ ৭৬ হাজার ৯০২ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির নজরুল ইসলাম মঞ্জু ধানের শীষ নিয়ে পেয়েছেন এক লাখ আট হাজার ৯৬৫ ভোট। অর্থাৎ দুই দলের মধ্যে ভোটের পার্থক্য প্রায় ৬৮ হাজার।

বিএনপির অভিযোগ, ‘ভোট ডাকাতি’ করে জিতেছে আওয়ামী লীগ। এর জবাবে জয় লিখেন, ‘তারা এখন খুলনা সিটি নির্বাচন নিয়ে বিভিন্ন গুজব ছড়াচ্ছে। যদিও তাদের মনোনীত প্রার্থী বিজয়ী প্রার্থীর তুলনায় প্রায় অর্ধেকেরও কম ভোট পেয়েছেন।’

‘বিএনপি পুরোপুরি একটি মিথ্যেবাদী দল। তারা প্রতিদিন একটি করে সংবাদ সম্মেলন করে আর ভাবে মানুষ এতটাই বোকা যে তাদের কথাগুলো বিশ্বাস করবে।’

ভোট গ্রহণে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন বা ইভিএমের বিরোধিতা করায় বিএনপির সমালোচনা করেন জয়। তিনি লিখেন, ‘বিএনপি-ই এতদিন ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) ব্যবহারের বিরোধিতা করে আসছে। সকল নির্বাচনে যদি ইভিএম ব্যবহার করা হতো তাহলে ভোট জালিয়াতি অসম্ভব হয়ে পড়ত। তারপরেও তারা এর বিরোধিতা করে যাচ্ছে।’

বিডি২৪লাইভ/ওয়াইএ

বিডি টুয়েন্টিফোর লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: