সোহেল রানা

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি

উল্লাপাড়ায় ১৫ মণ ভেজাল দুধ আটক

১৭ মে, ২০১৮ ২২:৫০:৫৯

ছবি: প্রতিনিধি

সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় কেমিকেল দিয়ে তৈরি ভেজাল দুধের ব্যবসা চলছেই। বৃহস্পতিবার ও বুধবার উল্লাপাড়া পৌরশহরের হাটখোলা ও শ্যামলীপাড়ায় অভিযান চালিয়ে প্রায় ১৫ মণ কেমিকেল মিশ্রিত ভেজাল দুধ আটক করেছে পৌর কর্মচারীরা। এসময় আরো ৫ ট্রাক দুধ আটকের চেষ্টা করা হরেও তারা পালিয়ে যায়।

ভেজাল দুধ আটকের সময় এর মালিকরা ধরা পড়ে সাজার ভয়ে দৌড়ে আত্মরক্ষা করে। উল্লাপাড়া পৌরসভার মেয়র এস.এম. নজরুল ইসলামের নির্দেশে মাহে রমজান উপলক্ষে এ ভেজাল বিরোধী অভিযান পরিচালনা করেন জেলা নিরাপদ খাদ্য কর্মকর্তা মোহাম্মদ আলী জিন্নাহ, পৌরসভার স্যানিটারী ইন্সপেক্টর আলী আহমেদ রতন,বাজার পরিদর্শক এস.এম. আমিনুল ইসলাম।

আটককৃত ভেজাল দুধ পৌর ভবনের সামনে জনগণের সামনে তা ড্রেনের মধ্যে ফেলে দিয়ে নষ্ট করা হয়। এ পৌর মেয়র এস. এম. নজরুল ইসলাম বলেন, সংবাদপত্রে ভেজাল দুধের খবর প্রকাশের পর তিনি পৌর শহরে নজরদারি শুরু করেছেন। এ ভেজাল বিরোধী অভিযান অব্যহত থাকবে। ভেজাল খাদ্য সামগ্রী তৈরি এবং বিক্রি করতে দেখলে পৌরসভাকে অবহতি করার জন্য অনুরোধ করেন। এ সময় পৌর কাউন্সিলর আলাউদ্দিন তালুকদার আলা,আজাদ হোসেন,পৌর সচিব তৌহিদুল ইসলাম, সহকারী প্রকৌশলী সাফিউল কবীর, উপ-সহকারী প্রকৌশলী জহুরুল ইসলাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য বিভিন্ন সংবাদপত্রে ভেজাল দুধ নিয়ে সচিত্র সংবাদ প্রকাশের পর তোলপাড় শুরু হয়। নড়ে চড়ে বসে প্রশাসন। এসময় ধারাবাহিক ভ্রাম্যমান আদালত চালিয়ে উল্লাপাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার দু’জনকে ভেজাল দুধ সহ আটক করে সাজা দেন। এবং কয়েকটি দুধ প্রক্রিয়াজাত কোম্পানীকে অর্থ দণ্ড করেন। প্রশাসনের এ অভিযানে উল্লাপাড়ার বিভিন্ন এলাকার কেমিকেল মিশিয়ে ভেজাল ও নকল দুধ তৈরি কারকরা ধরা পড়ার ভয়ে গা ঢাকা দেয়।

ভেজাল চক্রের সদস্যরা দুধ তৈরির মেশিন মাটির নিচে পুতে রাখা সহ পানিতে ফেলে দেয়। সারা দেশে পড়ে যায় হৈ-চৈ। দুধ প্রক্রিয়াজাতকারী দেশের বৃহৎ সংস্থা মিল্ক ভিটা নিন্ম মানের দুধ সংগ্রহের প্রমাণ পেয়ে উপজেলার কালিয়াকৈড় গ্রামের সোহেল নামে এক এক ব্যক্তির সমিতি বাতিল করে এবং তাদের দুগ্ধ সংগ্রাহকদের নিয়ে সভা করে। প্রশাসনের সেই অভিযানের রেশ কাটতে না কাটতেই উল্লাপাড়া পৌর শহরে এই বিপুল পরিমান কেমিকেল মিশ্রিত ভেজাল দুধ আটকের ঘটনা ঘটলো।

উল্লাপাড়ায় ভেজাল ও নকল দুধের ব্যবসা করে একটি চক্র কোটিপতি বনে গেছে। এত অভিযানের পরও প্রশাসন তাদের টিকিটিও ছুতে পারেনি। উল্লাপাড়া পৌরসভার স্যানেটারি ইন্সপেক্টর আলী আহমেদ রতন জানান, তারা কেমিকেল দিয়ে ভেজাল দুধ তৈরির বিষয়টি জানতে পারেন। গত দুই দিনে তারা প্রায় ১৫মণ কেমিকেল মিশ্রিত ভেজাল দুধ আটক করে ধ্বংস করেছে। এ বিষয়ে তারা নিয়মিত মনিটরিং শুরু করেছেন।

তিনি উল্লেখ করেন, উল্লাপাড়া,শাহজাদপুর ও পাবনার বেড়াসহ বিভিন্ন এলাকা থেকে কেমিকেল মিশ্রিত ভেজাল দুধ তৈরি করে মিনি ট্রাকে করে উল্লাপাড়াসহ বিভিন্ন হাইওয়ে ধরে ঢাকাসহ সারা দেশে যাচ্ছে। তাই তিনি উত্তরাঞ্চলের প্রবেশদার হাটিকুমরুল গোলচত্বরে প্রশাসনের নজরদারি বাড়ানো সহ তল্লাশির দাবি জানান।

বিডি২৪লাইভ/এমকে

বিডি টুয়েন্টিফোর লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: